অবশেষে মুক্তি পেয়ে পরিবারের কাছে ফিরলেন সেই বৃদ্ধ

অবশেষে মুক্তি পেয়ে পরিবারের কাছে ফিরলেন সেই বৃদ্ধ

August 23, 2020 1652 By মিরসরাই খবর
নিজস্ব প্রতিবেদক::
জামিনে থাকা না থাকাকে কেন্দ্র করে গ্রেফতার হয়েছিলেন ৮০ বছরের বৃদ্ধ জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী। যথারীতি গ্রেফতারের পর ওই বৃদ্ধকে আদালতের মাধ্যমে পাঠানো হয় জেলহাজতে । এসময় জানা যায় ২০১৯ সালে দায়েরকৃত ওই মামলায় ওয়ারেন্ট জারির পর আদালত থেকে জামিন নিয়েছিলেন তিনি। এরপর টনক নড়ে মিরসরাই থানা পুলিশের । মিরসরাই থানার ওসি মজিবুর রহমানের সর্বোচ্চ প্রচেষ্টায় দুই দিন পর জেল থেকে মুক্তি পেয়ে পরিবারের কাছে ফিরেছেন বৃদ্ধ জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী। তিনি মিরসরাই উপজেলার সদর ইউনিয়নের পশ্চিম কিছমত জাফরাবাদ গ্রামের মোজাফফর আলী চৌধুরী বাড়ীর মৃত বজলুর রহমানের পুত্র।

জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার (২০ আগস্ট) ‘নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনাল (মামলা নম্বর-১১৭/২০১৯) ভিত্তিতে মামলার  আসামি জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রেফতার করে মিরসরাই থানা পুলিশ। এসময় জাহাঙ্গীর আলমের পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশকে বারবার জামিনে থাকার কথা বলা হলে সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তা বিষয়টি গুরুত্ব না দিয়ে ওইদিনই কোর্টে চালান করে দেন। যদিও ২০১৯ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ওই ট্রাইব্যুনালে হাজির হয়ে জামিন নিয়েছিলেন বৃদ্ধ জাহাঙ্গীর আলম। তবে থানায় জামিননামার রি-কল জমা না হওয়ায় ভুল বোঝাবুঝির কারনে গ্রেফতার হয়েছিলেন জাহাঙ্গীর আলম।

mAD

বিষয়টি নজরে আসার পর মিরসরাই থানার অফিসার ইনচার্জ মজিবুর রহমান নিরলস প্রচেষ্টা ও পরিদর্শক (অপারেশন্স) দিনেশ দাশগুপ্তের তত্বাবধানে আজ জেল থেকে ছাড়া পান বৃদ্ধ জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী।

এ প্রসঙ্গে মিরসরাই থানার ওসি মজিবুর রহমান বলেন, ‘থানায় জামিননামার রিকল জমা দেওয়ার কপি না পাওয়ায় ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়েছিলো। ওই বৃদ্ধকে গ্রেফতারের বিষয়টি আমার জানা ছিলো না। জানলে সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নিতে পারতাম। গত দুইদিন আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করে কোর্ট ইন্সপেক্টরের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করেছি। এবং আজ জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরীকে জেল থেকে মুক্ত করে পরিবারের নিকট পৌছে দিয়েছি। অনাকাঙ্খীত ভুলের জন্য আমি উনার নিকট দুঃখ প্রকাশ করে দোয়া নিয়েছি।
mAD