নান্দনিকতা আর বিশ্বমানে সেজেছে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত

নান্দনিকতা আর বিশ্বমানে সেজেছে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত

March 9, 2019 1376 By মিরসরাই খবর

পর্যটন ডেস্ক::
হঠাৎ করে কেউ বিশ্বাস করতে চাইবে না এটা চট্টগ্রামের পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত। পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতের জিরো পয়েন্ট থেকে পাঁচ কিলোমিটার পর্যন্ত বিশ্বমানের এক নান্দনিক পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তুলতে ৫০০ কোটি টাকার ও অধিক ব্যয়ে একটি প্রকল্প চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (CDA) বাস্তবায়ন করতে চলেছে। কাজ এখনো কিছুটা বাকি আছে। ইতিমধ্যে চট্টলদরদী প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা চলমান এই প্রকল্পের কাজ সরেজমিন দেখে অত্যন্ত সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং বিমোহিত হন ।

mAD

যান্ত্রিক এ নগরীর কর্মব্যস্ত মানুষগুলোর কাছে ছুটির দিন মানেই হলো জীবনকে নতুন কিছু উপহার দেওয়া। তাই তো কর্মক্ষেত্রের কারণে যন্ত্রের মাঝে ডুবে থাকা যান্ত্রিক মানুষগুলো ছুটির দিনগুলোতে হারিয়ে যেতে চান প্রকৃতির মাঝে। বড় বড় অট্টালিকা আর মিল-কারখানার কারণে নগরীতে প্রকৃতির দেখা না মিললেও রয়েছে বেশ কয়েকটি পর্যটন কেন্দ্র। যার মধ্যে দর্শনার্থীদের কাছে অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে পরিচিতি রয়েছে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতের।
তবে নানা অযত্ন আর অবহেলার কারণে দিন দিন দর্শনার্থী হারাতে বসেছিল পতেঙ্গা সৈকত। তবে সমুদ্রের বিশালতার সাথে দর্শনার্থীদের আলিঙ্গন করার ইচ্ছা ও আগ্রহকে হারিয়ে যেতে দেয়নি চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (সিডিএ)। পতেঙ্গা সৈকতকে দর্শনার্থীদের কাছে আরো আকর্ষণীয় করে তুলতে নতুন রূপে সাজানো হয়েছে সৈকতের তীর। বিশ্বমানের পর্যটনকেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে সৈকত জুড়ে করা হয়েছে শতকোটি টাকার উন্নয়ন। যেখানে পর্যটকদের হাঁটার জন্য নির্মাণ করা হয়েছে প্রায় সাড়ে পাঁচ কিলোমিটার ওয়াক ওয়ে। তীর জুড়ে করা হয়েছে ফুলের বাগান। দর্শনার্থীদের জন্য বসানো হয়েছে ছোট-ছোট বিশ্রাম চেয়ার এবং নানা ধরনের রঙিন পাথর। চলছে শিশুদের জন্য রাইড নির্মাণের কাজ। সব মিলিয়ে আধুনিক ও নান্দনিকতার ছোঁয়ায় নতুন রূপে সেজেছে পতেঙ্গা সৈকত।
সমুদ্রকে ভালোবাসে না এমন মানুষ পাওয়া দুষ্কর। সেখানে যান্ত্রিক শহরের বুকে সমুদ্র সৈকত যা কিনা আবার গড়ে তোলা হয়েছে বিশ্বমানের পর্যটনকেন্দ্রগুলোর আদলে। তাইতো নতুন রূপে সাজা পতেঙ্গা সৈকতকে নতুনভাবে দেখতে ভিড় জমিয়েছে দর্শনার্থীরা।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সমুদ্রের বিশালতার মাঝে নিজেকে হারিয়ে দিতে সৈকতে ভিড় জমিয়েছে দর্শনার্থীরা। পরিবার-পরিজন, বন্ধু মহল আর প্রিয় মানুষকে নিয়ে দর্শনার্থীরা চষে বেড়াচ্ছে নতুন রূপে সাজা পতেঙ্গার বুক জুড়ে। দর্শনার্থীদের মাঝে কেউ কেউ হাঁটছেন নতুন তৈরি হওয়া ওয়াক ওয়েতে, কেউবা বিশ্রাম নিচ্ছে বিশ্রাম চেয়ারে, কেউবা আবার বাগানে ফোঁটা ফুলের ঘ্রাণে মুগ্ধ হয়ে দেখছেন সমুদ্রের বিশালতা।

mAD