নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন

August 25, 2018 1001 By মিরসরাই খবর

মো. সাঈদ হাসান (অভি) ::

mAD

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ সংশোধিত ২০০৩ এর অধীন যৌতুকের জন্য নির্যাতন ও হত্যার শাস্তি কি?

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ আইন সংশোধনী ২০০৩ এ যৌতুকের জন্য মৃত্যু ঘটানোর জন্য শাস্তির বিধান করা হয়েছে। যৌতুকের জন্য হত্যার দায়ে মৃত্যুদন্ড অথবা এ ধরনের চেষ্টার জন্য যাবতজ্জীবন কারাদন্ডে দন্ডনীয় হবে এবং উভয় ক্ষেত্রে উক্ত দন্ডের অতিরিক্ত অর্থদন্ডেও দন্ডনীয় হবে।

বাল্য বিবাহ কি?

বাল্য বিবাহ বলতে বুঝাবে, যে বিবাহের পক্ষদ্বয়ের যে কোন একজন শিশু। বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন ১৯২৯ এর বিধান মতে, ২১ বছরের নিচে কোন ছেলে এবং ১৮ বছরের নিচে কোন মেয়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হলে তা বাল্য বিবাহ বলে গন্য হবে।

*বাল্য বিবাহ সম্পাদনের শাস্তি কি?

বাল্য বিবাহ অনুষ্ঠান বা সম্পাদন করলে বা অনুষ্ঠানের নির্দেশ দিলে তিনি ১মাস পর্যন্ত কারাদন্ড বা ১০০০ টাকা জরিমানা বা ঊভয় দন্ডে দন্ডনীয় হবেন। এক্ষেত্রে পক্ষদ্বয়ের অভিভাবকগনও একই শাস্তি পাবেন।

*অপহরণ কি?

একজন মানুষের ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক একস্থান হতে অন্যস্থানে নিয়ে যাওয়াকে অপহরণ বলে।

*নারী ও শিশু অপহরণের শাস্তি কি?

যদি কোন ব্যক্তি কোন নারী বা শিশুকে নীতি বিগর্হীত কাজ ব্যতিত অন্য কোন উদ্দেশ্যে অপহরণ করে তাহলে উক্ত ব্যক্তি যাবজ্জীবন কারাদন্ড বা অন্যূন ১৪ বছর সশ্রম কারাদন্ড এবং এর অতিরিক্ত অর্থদন্ডে দণ্ডিত হবে। (নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ সংশোধনী ২০০৩ মতে)

*সংবাদ মাধ্যমে নির্যাতিত নারী শিশুর পরিচয় প্রকাশ করা যাবে কি?

না,কোন অবস্থাতেই প্রকাশ করা যাবে না। নির্যাতিত নারী শিশুর পরিচয় সংবাদ বা তথ্য এমনভাবে প্রকাশ বা পরিবেশন করতে হবে যাতে উক্ত নারী বা শিশুর পরিচয় প্রকাশ না পায়।

*নির্যাতিতা নারী শিশুর পরিচয় প্রকাশের শাস্তি কি?

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী ২০০৩) এর বিধান মতে নির্যাতিতা নারী ও শিশুর পরিচয় প্রকাশ কারী দায়ী ব্যক্তি বা ব্যক্তিবর্গ প্রত্যেককে অনধিক ২ বছর কারাদন্ড বা অনুর্ধ্ব ১ লক্ষ টাকা জরিমানা বা উভয় দন্ডে দন্ডিত করা হবে।

লেখক; আইনজীবি

এলএলবি, এলএলএম

জজ কোট, চট্টগ্রাম।

mAD