১১ জুলাই মানে এক অ-বিমোচিত ক্ষতের দগ দগে প্রজ্বলন

১১ জুলাই মানে এক অ-বিমোচিত ক্ষতের দগ দগে প্রজ্বলন

July 11, 2018 195 By মিরসরাই খবর

মিরসরাই খবর::

mAD

১১ জুলাই মানে এক অ-বিমোচিত ক্ষতের দগ দগে প্রজ্বলন।

১১ জুলাই মানে ভারী আকাশ গোমড়া মুখে আমাকে অবিরাম নীপিড়ন।

এক অশান্ত উৎপীড়ন… এক মর্মান্তিক দহন!

তবু সে আসে ঘুরেফিরে

আমাকে কাঁদাতে

৪৫টি মায়ের বুক ,

৪৫জন পিতা আর হাজার হাজার ভাই বোন বন্ধুর বুকে আগুন লাগাতে,

আবার সে আসে শোকাবহ এক সকাল নামাতে , এক নির্বাচ্য রক্তক্ষরণের স্রোত বেগবান করতে…

১১ জুলাই মিরসরাই ট্র্যাজেডি দিবস। আজ তার ৭ম বার্ষিকী। ২০১১ সালে ১১ জুলাই এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছিল স্কুল শিক্ষার্থীসহ ৪৫ জন। মিরসরাই স্টেডিয়াম বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল ফাইনাল খেলা শেষে একটি মিনি ট্রাকে করে সমর্থকরা আবুতোরাব এলাকায় যাবার সময় বড়তাকিয়া-আবুতোরাব সড়কের সৈদালী নামক স্থানে ছাত্রদের বহনকারী মিনি ট্রাকটি উলটে পড়ে রাস্তার পাশের ডোবায়, এতে মারা যায় ৪৫ স্কুল ছাত্র।

দুর্ভাগ্য হলেও সত্য যে সামান্য ট্রাক-চালকের সহকারী হয়ে সে দিন হেল্পার মফিজ চালকের আসনে ছিলো, আর অকালে ক্ষমতা পেলে যা হয়…

সে কথা বলছিলো মোবাইলে, গ্রামের আঁকাবাঁকা পথ, ট্রাক ভর্তি ছাত্র… এসব কিছুই তার সচেতনতাকে নাড়া দেয়নি!ফলে দুর্ঘটনায় পতিত হলো বাহন টি, আর ঝরে গেলে ৪৫টি কোমল প্রাণ! ট্র্যাজেডির ৭ম বার্ষিকী কেন? ৭০০তম বার্ষিকীতেও এই আঘাত এই ক্ষত কি কেউ ভুলতে পারবে? এই দুর্ঘটনার ঘাতক হেল্পর মফিজ যার মাত্র পাঁচ বছরের সাজা হয়! ৪৫ প্রাণহানির ঘটনায় তার মাত্র ৫ বছরের সাজা কোনভাবেই মানতে পারছেন না আত্মীয় স্বজন- বন্ধুও এলাকাবাসী, আসলে কি এই সাজা হাজার বছরের শেষ করা যাবে?

সেদিনই এই সাজা যথাযথ হবে যে দিন আমাদের প্রতিটি সড়ক নিরাপদ সড়কে পরিণত হবে, যেদিন প্রতিটি বাহন প্রতিটি চালক যাত্রীদের নিরাপদ আশ্রয় স্থলে পরিণত হবে! আর এটি সম্ভব শুধু মাত্র ব্যক্তিগত সচেতনতা ও আন্তরিকতা দিয়ে।

আমরা প্রত্যেকে যদি সচেতন হই, নিজের কাজকে সম্মান করি আর আন্তরিকতা দিয়ে কাজ করি তখনই এটি সম্ভব হবে।

লেখকঃ দাউদুল ইসলাম

কবি ও প্রাবন্ধিক, মিরসরাই।

mAD